Published: 28 অক্টো 2021

2021 সোনার বিনিয়োগের জন্য কেন সবথেকে ভালো বছর

ঐতিহাসিকভাবে, সোনা দূর্লভ মুদ্রা এবং মূল্যবৃদ্ধির বিপরীতে উত্তম হেজ হিসাবে এবং অনিশ্চিত সময়ে ভালো বিনিয়োগ হিসাবে প্রমাণিত করেছে। আমরা এটির সতত্যা 2020-তে দেখতে পেয়েছি, অতিমারি সারা বিশ্বে যতো অধিক ছডিয়েছে এবং সোনার চাহিদা ততোই বৃদ্ধি পেয়েছে।

2020-তে অতিমারির ক্ষতির বিরুদ্ধে সোনার বিনিয়োগ শীর্ষে ছিল। পুনরায় দ্বিতীয় ঢেউ আসার দরুন, দেখে মনে হচ্ছে 2021 সালেও একই ধরনে চ্যালেঞ্জ আসবে। এটির প্রধান কারণ হল সোনা খুবই মূল্যবান বিনিয়োগ – কারণ এটি অর্থনৈতিক সংকটের সময়েও তার মূল্য ধরে রাখে।

সোনার মৌলিক বিষয়গুলি

সোনা হল খুবই পুরোনো বিনিয়োগ, এবং যদিও স্বল্প সময়ের ক্ষেত্রে মুল্যের ওঠানামা আশা করা যায়, এটির প্রাসঙ্গিকতা কখনই তর্কের বিষয় ছিল না। এটি খুবই সত্য কারণ সোনার চাহিদা ব্যাক্তিগত পর্যায়ে এবং সরকারের স্তরে (বিদেশী রিজার্ভ হিসাবে সারা বিশ্বে যেসকল কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক সোনা মজুদ করে) উভয়ের ক্ষেত্রেই চাহিদায় রয়েছে। আজকের সময়ে, সারা বিশ্বের বিনিয়োগকারীরা সোনাকে প্রথাগত স্টক ও বন্ডে বিনিয়োগ করার বিকল্প হিসাবে দেখেন যেহেতু এটি ঝুঁকি-সমন্বিত আয় এবং পোর্টফোলিওতে বৈচিত্র প্রদান করে। সেই জন্যই আপনার পোর্টফোলিওর কিছু অংশ সোনায় বিনিয়োগ করা সবসময়ই উত্তম সিদ্ধান্ত।

সোনার বৃদ্ধি পাওয়া প্রাসঙ্গিকতা

কয়েক বছর ধরে, বিনিয়োগকারীরা সোনাকে বিভিন্ন কারণের জন্য প্রধান অ্যাসেট হিসাবে দেখতে শুরু করেছে। বিশ্বে সোনার চাহিদা 2001 থেকে গড়ে 15%  বৃদ্ধি পেয়েছে, এবং এই একই সময়কালে, সোনার মূল্য প্রায় এগারো গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। ব্যাক্তিরা বুঝতে শুরু করেছেন যে প্রথাগত বিনিয়োগ, যেমন স্টক এবং বন্ড, তাদের পোর্টফোলিওতে সুরক্ষা প্রদানের জন্য যথেষ্ট নয়। প্রধান বিষয় হল সোনার অন্যান্য অ্যাসেটের সাথে কোনো সম্পর্কে নেই এবং উচ্চ তারল্যযুক্ত যা বিনিয়োগকারীদের নিশ্চিত করে যে আর্থিক সংকটে তাদের সমস্ত বিনিয়োগ ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। শুধুমাত্র গত বছর সোনার কর্মক্ষমতার প্রসঙ্গিকতা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং খুচরা বিনিয়োগকারীদের জন্য বিনিয়োগের ইন্সট্রুমেন্ট হিসাবে নিয়ে আসা হয়েছে।

পণ্যরূপে সোনা

পণ্যের ইন্ডেক্সে সোনা হল খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। যদিও, এটির বৈশিষ্ট্য এটিকে অন্য অ্যাসেট থেকে আলাদা করে, যা এটির দীর্ঘকালীন কর্মক্ষমতায় প্রতিফলিত হয়। দুষ্প্রাপ্য এবং উচ্চ তারল্যযুক্ত হওয়ায়, এটি কঠিন সময়ে আপনার পোর্টফোলিওতে সুরক্ষার জন্য নিরাপদ অ্যাসেট। এটির সরবরাহ ভৌগলিকভাবে বৈচিত্রময়, যা এটির অস্থিরতা সীমিত করে। উপরন্তু, এটির গহনা হিসেবে ব্যবহারের বৈশিষ্ট্য এটি অন্য অ্যাসেটের থেকে কতটা আলাদা, সেটির নির্দেশ করে। সোনায় সরকারের ট্রেডিং করার সাথে সাথে, এটি মান হ্রাস পাওয়ার সম্ভবনা খুবই কম। যা এটিকে গুরুত্বপূর্ণ বিনিয়োগ হিসাবে বিবেচনা করতে সক্ষম করেছে।

ভারতবর্ষে এটির অবস্থান

অতিমারির সময় সারা বিশ্ব সোনার মূল্যে বৃদ্ধি প্রত্যক্ষ করেছে, যা আনুমানিকভাবে ভারতবর্ষে প্রতি 10 গ্রাম 24k-এর সোনায় INR 58,000 উঠে গিয়েছিল। যদিও 2021-এ প্রতিনিয়তই মূল্যের উঠানামা চলছে, এটি অবশ্যই ব্যাক্তিবর্গকে এই বছর সোনায় বিনিয়োগ থেকে বাধা দেবে না, এবং তার কারণ দেওয়া হয়েছে। ইউনিয়ন বাজেটে কাস্টমে শুল্কের হ্রাসের ঘোষণার অর্থ হল ক্রেতারা আগের 16.26%-এর পরিবর্তে  14.07% কর প্রদান করবেন। এই হ্রাস মূল্যে প্রভাবও ফেলতে পারে, কিন্তু এটি 2020-এর তুলনায় সোনা কেনা আরও বেশী আকর্ষনীয় এবং সাশ্রয়ী করে তুলবে। সেইসাথে, SEBI সোনার স্পট বিনিময়ের নিয়ন্ত্রক হিসাবে, যেসকল ব্যাক্তি প্রকৃত সোনায় বিনিয়োগ করতে চান তাদের জন্য সোনার মান কোনো চিন্তার বিষয় নয়। ইউনিয়ন বাজেটে এই ধরনের পরিবর্তন সোনার বিনিয়োগকে চালনা করে, যেহেতু এখন বেশী সংখ্যক মানুষ মূল্য হ্রাসের জন্য সোনা কেনার ব্যাপারে ইচ্ছুক হবেন।

মূল্যবৃদ্ধিকে টক্কর দেওয়া

Gold and commodity returns in rupees as a function of annual inflation*

Gold returns

গত দুই দশক নিশ্চিতরূপে অর্থনৈতিক দিক থেকে খুবই অস্থির ছিল, সেটা 2008-এর স্টক বাজারের পতন হোক, অথবা গত বছরের অতিমারি। সোনা এবং স্টক বাজারের প্রধানত বিপরীত সম্পর্কে রয়েছে, সেই কারণেই গত দশক ধরে সোনার দাম প্রায় দিগুন হয়েছে। গবেষণা অনুযায়ী  সোনা উচ্চ মূল্যবৃদ্ধির সময়ে ভালো কর্মক্ষমতার প্রদর্শন করেছে এবং মুদ্রাস্ফীতির সময় নিজেকে ধরে রেখেছে। চরম অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে যেমন উচ্চ মূল্যবৃদ্ধি এবং ডলারের দূর্বল হয়ে পড়া, সেইসময় সোনা অনেক অ্যাসেটকেই ছাড়িয়ে গেছে। সোনায় আপনার পোর্টফোলিওর একটি ছোট অংশ বিনিয়োগ করার মাধ্যমে, আপনি আপনার সম্পদ রক্ষা করতে পারেন এবং সুরক্ষাও যুক্ত করতে পারেন।

কম সুদের হার

পণ্য হিসাবে সোনা সুদের হারে খুবই সংবেদনশীল। 2020-তে, সোনার বিনিয়োগের চাহিদা ক্রমাগত কম সুদের হার এবং ডলারের উঠানামার দ্বারা উৎসাহিত হয়েছে। বোর্ড জুড়ে কম সুদের হার সোনার মূল্য ধরে রাখার সুযোগকে কম করেছে তাই চাহিদাও বৃদ্ধি পেয়েছে। 2020-তে এটি স্পষ্ট ছিল যে, যখন অত্যধিক-কম সুদের হারে সোনার ETF-এ প্রচুর প্রবাহ ছিল, যার ফলে সোনার মূল্য বৃদ্ধি হয়েছিল।

দীর্ঘ-কালীন বিনিয়োগ

Average annual return over the past five and ten years

Avg annual return

বিনিয়োগকারীরা অর্থনৈতিক সংকটের সময় সোনাকে নিরাপদ আশ্রয় হিসাবে দেখেন এবং প্রায়শই অর্থনীতি স্থায়ী হওয়ার পরে বিক্রয় করে দেন। যদিও, বৃদ্ধি পেতে থাকা একটি স্থায়ী অর্থনীতি সোনার ইতিবাচক ফলাফল যেহেতু এই সময় চাহিদা বৃদ্ধি পায়। ব্যক্তিদের কাছে অধিক নিষ্পত্তিযোগ্য আয়ের সাথে, সোনার চাহিদা বৃদ্ধি পায় এবং সোনার মূল্যে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। এটি ভারতবর্ষের ক্ষেত্রে খুবই সত্য, যেখানে সোনার শুধুমাত্র বিনিয়োগ নয় বরং সাংস্কৃতিক তাৎপর্যও রয়েছে। সোনার কর্মক্ষমতা অন্যান্য অর্থনৈতিক অ্যাসেটের সমান, প্রধানত যখন দশ বছরের বেশী সময়কাল ধরে লক্ষ্য করা হয়। যেখানে স্বল্প-মেয়াদী কারণ যেমন সুদের হার, নতুন মুদ্রানীতি, এবং ডলারে পরিবর্তন মূদ্রা ওঠানামা করতে পারে, সেখানে দীর্ঘ-কালীন বিনিয়োগের জন্য সোনায় বিনিয়োগ একটি দারুন পছন্দ।

লিকুইডিটি

বিশ্ব সোনার বাজার হল বৃহৎ এবং উচ্চ তারল্যপূর্ণ; প্রকৃতপক্ষে, বন্ড এবং স্টক সহ, এটি অনেক প্রধান অর্থনৈতিক বাজারের তুলনায় বড় মাপের। যেহেতু এটি একটি দুষ্প্রাপ্য পণ্য, এটি তার মান ধরে রাখে। সোনার বিনিয়োগের সময় লিকুইডিটি উদ্বেগের বিষয় হলে, তাহলে বাজারের আধুনিকায়ন সেই সমস্যার সমাধান করেছে। যেখানে প্রকৃত সোনাকে লিকুইডেট হতে কিছু দিন সময় লাগে, সোনার নতুন-যূগের ডিজিটাল ফরম্যাট যেমন সোনার ETF এবং সোনার ফান্ড ততক্ষনাত লিকুইডেট হয়ে যায়। সোনার ETF এবং সোনার ফান্ডের সাথে যেহেতু প্রকৃত সোনার মতো বিশুদ্ধতা অথবা সংরক্ষণের চিন্তা নেই, তাই এই বছর এটি বিনিয়োগের লাভজনক বিকল্প।

এই সমস্ত কারণ সোনাকে 2021-এর আকর্ষনীয় বিনিয়োগ করে তোলে। যদিও নিরাপদ আশ্রয় হিসাবে এটির প্রথাগত ভুমিকা আজও সত্য, স্থায়ী অর্থনীতি এবং বৃদ্ধিতে এটি বিনিয়োগকারীকে ইতিবাচক আয়ও প্রদান করে। যেকোনো বিনিয়োগে মূল্যের উঠানামা খুব সাধারণ ব্যাপার, কিন্তু সোনার সময়ের সাথে  অতুলনীয় ইতিবাচক বৃদ্ধির প্রদর্শন করেছে। এটি উচ্চ তারল্যযুক্ত বৈশিষ্ট্য এবং বিভিন্ন ফরম্যাটে এটির উপলব্ধতা সোনাকে লাভজনক, সুবিধাজনক বিনিয়োগ করে তুলেছে। বিশদ বিশ্লেষনের মাধ্যমে দেখা যায়   আপনার পোর্টফোলিও-তে 5% থেকে 10% সোনায় বিনিয়োগ আপনার পোর্টফোলিওর কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে, বিনিয়োগ বৈচিত্রময় করে, এবং ঝুঁকি-সমন্বিত আয় প্রদান করে। আপনি যদি সোনায় বিনিয়োগের কথা ভাবেন, তাহলে এটি হল উপযুক্ত সময়।